image description

ভাল লাগা মন্দারমনি।

হটাৎ ঘর পরিষ্কার করতে গিয়ে খুঁজে পেলাম ফোনটা বছর 4 আগে শেষ ব্যবহার করেছিলাম। নিজের টাকায় কেনা প্রথম ফোন। ফোনের 2 GB অচল মেমরি কার্ড টা খুলতেই কিছু পুরনো স্মৃতির আবার উঁকি দিয়ে গেল।

তা প্রায় 5 বছর আগে দিঘা মন্দারমনি হটাৎ ঠিক হয়ে গেল। বাড়িরই লোকজন সবাই সাকুল্যে 9 জন। রওয়ানা হতে হতে দুপুর গড়িয়ে প্রায় বিকেল । শুরুতেই বাধা পুলিশের চেকিং। বেহালা ছেড়ে বেরোতেই 5 টা বেজে গেল। চিড়িয়া খানা পেরিয়ে আবার পুলিশ । কলকাতা পারলাম বৃষ্টি নিয়ে। জুলাই মাসে বৃষ্টি হবে না এমন নয় বিদ্যাসাগর সেতু পেরতেই নেমে গেলেন বর্ষা রানী।

গাড়ি ছুটে চলেছে প্রায় 80 তে রাস্তা সরু হলেও বেশ ভাল তবে ভীষণ অন্ধকার হেডলাইট ছাড়া আলো নেই কোথাও। হটাৎ দূরে ছোটো ছোটো টর্চের আলো। দেখে ভয় লাগবে এরা কারা। দুর এরা তো আমাদের ভ্রমণ সঙ্গী এবার জেলা পুলিশের চেকিং এর পালা। আমাদের ড্রাইভার সিটবেল্ট বাঁধেন নি ফাইন এবার আর আটকানো গেল না। দিঘা পৌছালাম প্রায় নটা। খেয়ে দেয়ে ঘুম।

না দিঘা নিয়ে কিছু বলবো না। সবাই বহুবার গেছেন আমি ও আগে 2 বার গেছি। ফেরার পথে মন্দারমনি হয়ে ফেরার কথা যদিও থাকবো না। বৃষ্টি মাথায় নিয়েই মন্দার মনি ঢুকলাম, এই প্রথম বার তখন বেলা 11 টা। প্রথম এত ফাঁকা সি বিচ দেখলাম সাথে অবিরাম বৃষ্টি। বৃষ্টির সমুদ্রের রূপ সব থেকে সুন্দর সেটা উপলব্ধি করলাম । জোরালো ঠান্ডা হওয়া সাথে কখনো হালকা কখনো জোরে মোহময় রোমান্টিক বাতাবরণ। 2 মেগাপিক্সেল ফোনটা দিয়ে বেশ কিছু ফটো তুলেছিলাম মনে পড়ে। ফোনের স্পেস ম্যানেজ করতে অধিকাংশই ডিলিট করতে হয়েছে। রয়ে গেছে কিছু ভাল লাগা স্মৃতি। শেয়ার করলাম। এই ভরা বর্ষায় যখন পাহাড় জঙ্গল একটু বিপদজনক তখন মন্দার মনি হয়ে উঠুক কম খরচে বাঙালির একান্ত রোমান্টিক ট্রাভেল ডেস্টিনেশন।।????????